একটি অনুপ্রেরণার নাম প্রতিবন্ধী শিশু বেল্লাল

0
12

বেল্লালের দুটো হাত নেই। দুটো পা আছে। নেই হাটু। পায়ের আঙ্গুলের ফাঁকে চক কিংবা পেন্সিল দিয়ে লেখা শিখিয়েছেন তার মা হোসনেয়ারা বেগম। মা সব সময়ই অতুলনীয়।

পিতার কাঁধে চড়ে এ বছর জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নিতে যায় প্রতিবন্ধী শিশু বেল্লাল। নেই হাত, তাই লিখতে হয়েছে পা দিয়ে। তবে প্রতিবন্ধিতা তাকে আটকে রাখতে পারেনি। পা দিয়ে লিখেই জিপিএ-৫ পেয়েছে মেধাবী শিশুটি। পিতা-মাতা এবং শিক্ষকদের সহযোগিতায় পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের উমেদপুর দাখিল মাদ্রাসা থেকে সে জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। পরীক্ষার খাতায় লিখেছে ডান পায়ের আঙ্গুল দিয়ে।

প্রতিবন্ধী শিশু বেল্লাল বড় হয়ে শিক্ষক হতে চায়। আশাকরি তার আশা পূর্ণ হবে। তাকে দেখে ও তার কথা জেনে অনেকে অনুপ্রাণিত হবে। প্রতিবন্ধীরা সবসময়ই আমাদের কাছে অবহেলার বস্তু। তাদের প্রতি আমাদের মাইন্ড সেট টাই এরকম যে তারা কিছু পারবেনা। কিন্তু প্রতিবন্ধীদের মাইন্ড সেট টা আমাদের মত দূর্বল নয়। তারা অনেক কিছু করে দেখিয়ে দিতে পারে যা অনেক সুস্থ মানুষও পারে না। দুহাত আর হাটু না থাকার পরও বিল্লাল যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে স্বাগত জানায় সমাজের সকল বিল্লালকে সাথে সালাম। তাই প্রতিবন্ধী শিশু বেল্লাল একটি অনুপ্রেরণার নাম!

ref by teachers.gov.bd