গ্যাস এর পাইপ বিস্ফোরণ এবং অগ্নিকান্ড হতে রক্ষা পেতে কয়েকটি সতর্কতা

0
32
আজকে খবরে দেখলাম উত্তরায় গ্যাস বিস্ফোরনে একই পরিবারের দুই ছেলে নিহত আর বাবা-মা মুমুর্ষ অবস্থায় আছে।পুরো খবরটা হচ্ছে এই পরিবার উত্তরায় সেক্টরের ভিতরে ফ্লাটে ভাড়া থাকতেন। তো কিছুদিন যাবত তাদের গ্যাসের চুলার পাইপের কিছুটা সমস্যা হচ্ছিল। তারা বাড়িওয়ালাকে অবহিত করার পরেও বাড়িওয়ালা বিষয়টা কেয়ার করেনি এবং তারাও এই ব্যাপারে কোন উদ্যেগ নেন নি।
তো আজকে তারা বাইরে বেরাতে যাওয়ার সময় ঘরের সব দরজা জানালা বন্ধ করে গিয়েছিলেন। তখন যা হওয়ার তাই হয়েছে। পুরো ঘরে গ্যাস জমে গিয়েছিলো। তারা যখন বাইরে থেকে এসে চুলা ধরানোর জন্য ম্যাচের কাঠি জালালেন সাথে সাথে পুরো ঘরে আগুন ধরে গেলা। এই বিষয়টা আপনার বাসায়ও হতে পারে। কারন এধরনের দুর্ঘটনা অজান্তেই হয়ে থাকে বেশিরভাগ সময়।
এজন্য নিচের সতর্কতা গুলো অবলম্বন করুন
১) অবশ্যই আপনার কিচেনের জানালার সাথে বা উপরে এগ্জাস্ট ফ্যান লাগানো আছে কিনা নিশ্চিত হয়ে নিন। বাজারে ছোট ছোট ফ্যান পাওয়া যায়। অল্পকিছু টাকা বাচানোর জন্য সেগুলো না কিনে বড়গুলো কিনুন।
২) যখনই কিচেনে ঢুকবেন আগে ফ্যানটি ছারুন। কিছুক্ষন ফ্যান চলার পরেই ম্যাচ জালান। আর ম্যাচের কাঠি ব্যাবহার থেকে লাইটার ব্যাবহার করুন। এখন বাজারে ভালো কিছু লাইটার পাওয়া যায় চুলো ধরানোর জন্য।
৩) কিচেনে ঢোকার পরে আগে কিচেনের মধ্যে গন্ধ নেবেন। এটা খুবই স্বাভাবিক ব্যাপার যে মিথেন গ্যাসেরে গন্থ একটু অন্যরকম। গ্যাসের গন্ধ পেলে পুরো ঘরের সবধরনের জানালা খুলে সিলিং ফ্যান গুলো ছেরের দিন।
৪) বাইরে থেকে এসে হঠাৎ করে চুলোয় কিছু বসাবেন না। এমনিতে আপনি ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে অনেক্ষন ধরে বাইরে গেলে ভেতরে একটা গুমোট পরিস্থিতির সৃস্টি হয়। তাই বাইরে থেকে এসে সবার আগে প্রতিটি জানালা-দরজা খুলে দিলে ঘরের পরিবেশ স্বাভাবিক করে তার পরই চুলো ধরান।
৫) সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ হচ্ছে কিচেনে একটা অগ্নিনির্বাপন সিলিন্ডার রাখুন। বর্তমানে প্রতিটি ফ্লাটেই এগুলো রাখা সরকারি আইনে বাধ্যতামুলক। কিন্তু আমরা এই আইনটা মানবো তো দুরের কথা জানিই না।
আর মাঝে মধ্যে বাসার বাড়িওয়ালাকে ধমক দিন। বাড়িওয়ালাদের ধমকের উপর না রাখলে এরা মাথায় চরে বসে এবং আপনাকে কোনকিছুতেই দাম দেবে না। বাসায় প্রবলেম হলে বাড়িওয়ালা সেটা ঠিক করে দিতে বাধ্য। প্রয়োজনে সে চার্জ করবে কিন্তু ঠিক করেদেবে। আইন সেটাই বলে। তাই এই বিষয়টা নিশ্চিৎ হয়ে নেবেন।
credit: mr.shiplu