দর্শনার্থী ব্যবস্থাপনায় নতুন নির্দেশনা সরকারি হাসপাতালে

70

রবিবার গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে দেশের সকল সরকারী হাসপাতাল গুলোতে এক প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। নির্দেশনাপত্রে হাসপাতালে দর্শনার্থী ও চিকিৎসকদের গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়াদি আলোকপাত করা হয়। নির্দেশনাপত্রে উল্লেখ করা হয়,
দেশের সকল সরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে মানসম্মত চিকিৎসা সেবা প্রদান বর্তমান সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। মাননীয় প্রধাণমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্ব ও নির্দেশনায় এই স্বাস্থ্যখাতের অগ্রগতি বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত। মানসম্মত ও নিরাপদ চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে হলে রোগীর সাথে আগত দর্শনার্থীদের নিয়ন্ত্রণ করা অতীব জরুরি। কেননা অনেকেরই স্বাস্থ্য বিষয়ক অজ্ঞতা এবং রোগ জীবাণুর সংক্রমণ রোধে করণীয় বিষয়ে পরিপূর্ণ ধারণার অভাবে অধিকাংশ সময়ই কাঙ্ক্ষিত পরিবেশ বা পরিস্থিতির অবনতি হয়।এছাড়াও ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত দর্শনার্থী হওয়ায় হাসপাতালের নীরবতা, পরিষ্কার, পরিচ্ছন্নতা , ইউটিলিটি সার্ভিসিং, রোগীর গোপনীয়তা এবং চিকিৎসাসেবা প্রদানকারীদের নিরাপত্তাসহ প্রভৃতি বিষয় বিঘ্নিত হয়। এমতাবস্থায় দেশের সকল সরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষকে নিচে উল্লেখিত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হলো-

১/প্রত্যেক হাসপাতালে দর্শনার্থী পাশ চালু করতে হবে এবং প্রতিটি পাশের জন্য নিরাপত্তা জামানত চালু করা যেতে পারে।
২/রোগীর অসুস্থতা বিবেচনায় ১ জন রোগীর সহায়তার জন্য সর্বোচ্চ ২ জন দর্শনার্থীকে পাশ দেয়া যেতে পারে।
৩/হাসপাতাল ত্যাগের পূর্বেই পাশ ফেরত প্রদানপূর্বক নিরাপত্তা জামানত ফেরত নিতে পারবেন।
৪/হাসপাতালের সকল চিকিৎসক ও নার্স সহ কর্মচারীগণ বৈধ পরিচয়পত্র দৃশ্যমাণভাবে বহন করবেন।