প্রাণের ভাষা

78

মোঃ আরিফুর রহমান (ডিজিটাল কবি)   

এত গান,এত সুর 
দিলে তুমি আমায়। 
তুমি ছাড়া সব গান 
বিবর্ণ ধরায়। 
তুমি আমার হৃদয় মিশে, 
তুমি প্রতি কণায়। 
তুমি আমার রক্তে, 
প্রতি কণিকায়। 

ও বাংলা!ও বাংলা! 
তুমি আমার ভাষা। 
কি করে তাই তুমি বিনা 
প্রকাশ করি আশা। 

এত ছড়া, এত কবিতা 
তোমার ঝর্ণা ধারায়। 
ভিজে গিয়ে হৃদয় আমার 
স্নান হয়ে যায়। 
তোমার কথা সাগর গিয়ে 
তরঙ্গ-রাগ ভাঙ্গায়। 
তোমার শীতল কথা শুনে 
সেও মাথা নোয়ায়। 

ও বাংলা! ও বাংলা! 
তুমি ভালবাসা। 
তুমি ছাড়া ভালবাসা 
ভাষা পায়না। 

এত সোনা,এত হীরা 
দেখি এত গলায়। 
দেশের গলায় তোমার কথা 
অধিক আলো ছড়ায়। 
যদি সোনা-হীরা মূল্য সবই 
মাপি একটি পালায়। 
অন্য পালায় তোমার মূল্য 
বেশি বলে জানায়। 

ও বাংলা! ও বাংলা! 
তুমি হৃদয়-গাথা। 
কোন দামে যায়না কেনা 
অমূল্য ঐ কথা। 

ছোট্ট সুরে মা ডাকটা 
সুমধুর ভাষায়। 
সুরে সুরে পুরো ধরা 
প্রসার হয়ে যায়। 
একটি মাত্র বর্ণে তোমার 
এত মধু ঝরায়। 
কোন ফুলেতে থাক তুমি 
বলে দাওনা আমায়। 

ও বাংলা! ও বাংলা! 
তুমি আমার মা। 
কোথাও মা তুমি ছাড়া 
পাইনা মায়ের ছায়া। 

তুমি স্বর্ণ তুমি রত্ন 
লুকিয়েছি মনে। 
তুমি ফুল, তুমি মালা; 
দিয়েছি তা গলে। 

কত ছেলে মাগো তোমায় 
মিছে ভুলে যায়। 
মাকে তার ডাকে মাগো 
বিদেশিনী ভাষায়। 

এ বুকে মা রক্তের 
স্রোত বয়ে যায়। 
বেদনার ইতিহাস 
মনে পড়ে যায়। 

কত ছেলে তোমার তরে 
জান ঢেলে দেয়। 
মনে পরে চোখেতে মা 
জল এসে যায়। 


চোখ-জল দাও মুছে 
নিজ হাত-ছোঁয়ায়। 
বয়ে বয়ে যাবে তবে 
তব সাড়া গায়।