সকালের পাঁচটি অভ্যাস জীবন বদলে দিতে পারে

57

যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত সামাজিক সংস্কারক হেনরি ওয়ার্ড বেক বলেন, ‘সকালের প্রথম ভাগটি সারা দিনের পথনির্দেশক।’ আসলে জাহাজের রাডার বা হালের মতো সকালের রুটিন বলে দেয় সারা দিনটি কীভাবে কাটবে আপনার।

সকাল ধীরগতিতে শুরু হলে সারা দিনের কাজ পিছিয়ে যায়। আর সকালটি স্বাস্থ্যকর একটি রুটিনের মধ্য দিয়ে শুরু হলে এটি কেবল আপনাকে গোছাতেই সাহায্য করে না, সারা দিনের মানসিক ও শারীরিক শক্তি জোগায়।

সকালে করতে পারেন এমন পাঁচটি স্বাস্থ্যকর অভ্যাসের কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি। এই অভ্যাসগুলো জীবন বদলাতে সাহায্য করবে।

১. ধ্যান

ঘুম থেকে সকাল সকাল উঠুন। বিছানা গুছিয়ে অন্তত ১৫ মিনিট ধ্যান করুন। ধ্যান আত্মনিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে এবং ইতিবাচক চিন্তা বাড়ায়। প্রতিদিন ধ্যান করা মানসিক চাপ কমাতে উপকারী। তাই সকালে উঠেই এই কাজটি করে ফেলুন।

২. পানি পান করুন

সকালে উঠে পানি পান করা হজমে সাহায্য করে। পাশাপাশি মাঝেমধ্যে লেবুপানি পান করতে পারেন। লেবুর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন সি। ভিটামিন সি ত্বক ও রক্তনালি ভালো রাখতে কাজ করে। এটি ফ্রি রেডিক্যালের সঙ্গে লড়াই করে কোষকে ক্ষতি থেকে বাঁচায়।    

৩. গোসল

বিশেষজ্ঞরা বলেন, সকাল ১০টার আগে গোসল করে নেওয়া খুব ভালো একটি অভ্যাস। সকাল সকাল গোসল আপনার শরীর ও মনকে সতেজ রাখবে। এতে সারা দিনে কাজগুলো করতে আরামবোধ করবেন।

৪. ফোন থেকে দূরে থাকুন

মানছি, মোবাইল ফোন খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি যন্ত্র। আর সে জন্যই হয়তো আমরা ঘুমাতে যাওয়ার আগে বা ঘুম থেকে ওঠার পরপরই মোবাইল ফোন নিয়ে নাড়াচাড়া শুরু করে দিই। তবে এটি আর নয়। বরং এর বদলে সকালে উঠে একটু পাখির ডাক শুনুন বা সারা দিন কী করবেন, সেটি নিয়ে ভাবুন।

সব সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে না থেকে নিজের জন্যও একটু সময় দিন। আর এটা নিজের মনকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করবে।

৫. স্বাস্থ্যকর খাবার খান

অনেকেই সকালের নাশতা বাদ দেন। অতিরিক্ত কাজের চাপ বা ওজন কমানোর চিন্তায় সকালের নাশতাকে গুরুত্ব দেন না অনেকে। তবে এই অভ্যাসটি খুবই ক্ষতিকর।

কারণ, সারা দিনের কাজের শক্তির অন্যতম একটি উপায় কিন্তু সকালের নাশতা খাওয়া। সকালে একটি স্বাস্থ্যকর নাশতা আপনাকে সারা দিন কর্মক্ষম রাখতে কাজ করবে। সকালের নাশতায় রাখতে পারেন দুধ, ওটস, কলা, ফল ইত্যাদি।