“অসগুড স্ক্যাটার ডিজিজ”



  • Add Comments
  • Print
  • Add to Favorites

“অসগুড স্ক্যাটার ডিজিজ” ক্রমবর্ধমান কৈশোরদের হাঁটু ব্যথার একটি অন্যতম প্রধান কারণ। এই রোগে ঠিক হাঁটুর নিচের এমন একটি জায়গায় প্রদাহ হয় যেখানে প্যাটেলার টেন্ডন টিবিআার সাথে যুক্ত হয়। এটি বয়ঃসন্ধিকালে বেশী হয়ে থাকে যখন হাড়; মাংসপেশি; টেন্ডন এবং শরীরে অন্যান্য গঠনের দ্রুত পরিবর্তন ঘতে। কারণ শারীরিক কাজের কারণে হাড় এবং মাংসপেশিতে অতিরিক্ত টান পরে। বিশেষ করে যারা দৌড় এবং লাফানোর মতো খেলাধুলায় অংশ নেয় তাদের ক্ষেত্রে এই রোগ হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।
উপসর্গ সমূহ হল-
• হাঁটু ব্যথা বিশেষ করে টিবিয়ার টিউবারকলে চাপ দিলে ব্যথা লাগা।
• হাঁটু ফুলে যাওয়া।
• ঊরুর সামনে ও পেছনের মাংসপেশিগুলো শক্ত হয়ে যাওয়া।
• সিঁড়ি দিয়ে উঠানামা এবং হাঁটু ভাঁজ-জনিত সকল কাজে ব্যথা হওয়া।
• দিরঘকালস্থায়ী হলে কোয়াডিসেপস্ দুর্বল হয়ে যাবে।
চিকিৎসা
বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই স্ত্রেচিং এবং স্ত্রেন্দেনিং এক্সারসাইজের মাধ্যমে ব্যথার উপশম হয় এবং দৈনন্দিন কাজে ফিরে যাওয়া যায়। প্রায় ৯০% রোগীর ক্ষেত্রে ফিজিওথেরাপির মাধ্যমে রোগীর উন্নতি হয়েছে (Gholve et al., 2007)। কিন্তু সমস্যা পুরোপুরি সমাধান হওয়ার ১২ থেকে ২৪ মাস পর্যন্ত উপসর্গ আসতে পারে।

লিখেছেন : Proma

No Comments to ““অসগুড স্ক্যাটার ডিজিজ””

Comments are closed.