আমাদের দেশের চিকিৎসায় কেন এত অভিযোগ ?



  • Add Comments
  • Print
  • Add to Favorites

আমাদের দেশের চিকিৎসায় কেন এত অভিযোগ ? কেন এত হাহাকার ! চিকিৎসক আর রোগীর মাঝে কেন এত দূরত্ব ! এর সবচেয়ে বড় কারন হল চিকিৎসক সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় খুব কম । দেশে বর্তমানে রেজিস্টার্ড ফিজিশিয়ান ৬৪৪৩৪ , ডেন্টিস্ট ৬০৩৪ , ফিজিওথেরাপিস্ট ১৫০০, রেজিস্টার্ড নার্স ৩০৫১৬ ( MOHFW ২০১৩) ।

দেশের জনসংখ্যা যদি আপনি নূন্যতমও ১৬ কোটি ধরেন, তাহলে আমাদের দেশে ১০ হাজার রোগীর জন্য জন্য ৪ জন ফিজিশিয়ান (এমবিবিএস ) আর ১ লক্ষ রোগীর জন্য ১ জন ফিজিওথেরাপিস্ট (বিএসসি ইন ফিজিওথেরাপি) আছেন । যেখানে কিউবায় ১ হাজার মানুষের জন ৮ জন , যুক্তরাষ্ট্রে ২.৫ জন , যুক্তরাজ্যে ২.৭ জন চিকিৎসক আছেন (বিবিসি)।

আমাদের দেশে একজন মানুষের গড় বাংসরিক চিকিৎসা খরচ ১২৭৬ টাকা (১৬.২০ মার্কিন ডলার) ( MOHFW ২০১০) । যার মধ্যে ৬৪% আসে মানুষের নিজস্ব পকেট থেকে , বাকিটা সরকার আর দেশি বিদেশী বিভিন্ন ফান্ড থেকে আসে । আর মার্কিনিরা মাথা প্রতি খরচ করে সাড়ে ৮ হাজার ডলার , কিউবা অবশ্যই মাথাপ্রতি ৪৩১ মার্কিন ডলার খরচ করেই আমেরিকার চেয়েও ভাল চিকিৎসা দেয় ( বিবিসি ) ।

গত কয়েক বছরে আমাদের দেশে মা ও শিশু মৃত্যু হার অনেক কমেছে । চিকিৎসার অবস্থা আস্তে আস্তে অনেক উন্নতি হয়েছে । অনেক ভাল ভাল বিশেজ্ঞ চিকিৎসকও তৈরি হয়েছে । অনেক নতুন ভাল ভাল গবেষনাও হয়েছে ! তবে দুঃখ জনক হলেও সত্যি , ফিজিওথেরাপির মত গুরুত্বপূর্ন চিকিৎসা এখনও আমাদের দেশে অবহেলিত রয়ে গেছে। মানুষ ব্যথা যন্ত্রনায় আর প্যারালাইসিসে দিনের পর দিন কষ্ট পাচ্ছে । অথচ এইসব সমস্যার সমাধানে সঠিক ফিজিওথেরাপির কোন বিকল্প নেই ।

তবে যাই হোক আমাদের দেশের চিকিৎসায় হয়রানি দিন দিন বেড়েই চলছে । অনেক বড় বড় রোগের চিকিৎসা টাকার উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে । যেমন একটা বাইপাস সার্জারির জন্য সরকারী বেসরকারি যেখানেই যান না কেন ? কোথাও দুই লাখ টাকার কম নাই ।এখন ধরুন , একজন রিকসা চালক বা দিনজুরের বাইপাস লাগলে , সে কি করবে ? তাকে নিশ্চয় বিনা চিকিৎসায় মরতে হবে ! বিশেষায়িত হাসপাতাল গুলোতে রোগীদের ভিড় লেগেই থাকতেছে । গ্রাম থেকে কোন গরীব রোগী যখন চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আসে , তখন অবর্ননীয় দুঃখ দুর্দশার সম্মুখীন হতে হয় । চিকিৎসার কাছে গরীব মানুষ এখনও খুব খুব অসহায় । তাদের নুন্যতম সম্ভলটুকুও চিকিৎসার জন্য ব্যয় হয়ে যাচ্ছে । অথচ সেটা আমাদের রাষ্ট্রেরই দেওয়ার কথা ছিল । কারন চিকিৎসা মানুষের অন্যতম মৌলিক প্রয়োজনীয় একটি জিনিস । সেটাই অবশ্যই তার জন্মসূত্রেই পাওয়ার কথা ছিল । কিন্তু সেটা আমরা দিতে পারছি না । নিশ্চয় সেটা আমাদের রাষ্ট্রের ব্যর্থতা !

চিকিৎসকরাও এত মানুষকে চিকিৎসা দিতে দিতে হাপিয়ে উঠছে । বিশেজ্ঞ চিকিৎসকদের জন্য রোগীদের বিশাল সিরিয়াল , চিকিৎসকরাও বাধ্য হচ্ছে তাড়াহুড়া করতে । আর তাড়াহুড়ায় ভুলও হচ্ছে অনেক। অনেক চিকিৎসক বিরক্ত হয়ে রোগীদের সাথে খারাপ ব্যবহার করছে । রোগীরাও একইভাবে চিকিৎসকের সাথে খারাপ ব্যবহার করতেছে । এছাড়া কিছু অসৎ চিকিৎসকরাও মানুষের সাথে চিকিৎসা নিয়ে প্রতারনা করতেছে । ফলে এই মহান পেশায় চিকিওসক আর রোগীদের মাঝে শ্রদ্ধার সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যাচ্ছে । আর হাসপাতালগুলো তো আছেই , পারলে রোগীর শার্ট প্যান্ট খুলে বিল আদায় করে!

সবশেষে বলব , চিকিৎসার এই সব সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ আমাদের নিজেদেরকেই নিতে হবে । জনপ্রতি ১২০০ টাকা আমাদের বাৎসরিক চিকিৎসা খরচ । খুব কম টাকা । সবাই মিলে দিলে কিচ্ছু না ! সরকার সবার কাছ থেকে মাসে ১০০ টাকা করে নিলেই বছরে ১২০০ টাকা হয় , সব মানুষকেই সঠিক চিকিৎসা পায় । অন্তত মোটামুটি চিকিৎসা খরচ নিয়ে আর কাউকে ভাবতে হচ্ছে না । এবং সরকার তার বাজেট আর দেশী বিদশী ফান্ড নিয়ে বেশি বেশি মানসম্মত চিকিৎসক তৈরি করলেই , আগামী ১০ বছর পর দেশে চিকিৎসা নিয়ে এত হাহাকার থাকার কথা না । শক্তভাবে উদ্যোগ নিলে আর সবার চেষ্টা থাকলে স্বাস্থ্যখাত অবশ্যই হররানি মুক্ত হবে । হায়াত মৃত্যু চিকিৎসকের হাতে না , আমরা আমাদের সর্বচ্চোটাই চেষ্টা করতে পারি !

ধন্যবাদ
ডা সাইফুল ইসলাম ,পিটি
ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক
বিএসসি ইন ফিজিওথেরাপি ( ঢাবি- সিআরপি)
প্রতিষ্ঠাতা ও কো-অর্ডিনেটর
ভিশন ফিজিওথেরাপি সেন্টার , উত্তরা ।

No Comments to “আমাদের দেশের চিকিৎসায় কেন এত অভিযোগ ?”

Comments are closed.