গণবিতে সময় উপযোগী নতুন কোর্স চালু



  • Add Comments
  • Print
  • Add to Favorites

চাকরিটা খুবই জরুরী। আর এই সোনার হরিণকে পেতে পারেন আপনি একটু সচেতন হলেই। চাকরির বাজারে চলা উচিৎ একটু সতর্কতার সাথে। সেইসাথে হতে হবে বিচক্ষণও।

প্রথমত বিচক্ষণতার পরিচয় দিতে পারেন আপনি বিষয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার পরই এর মোক্ষম সময়। এ সময় আপনি নির্বাচন করুন এমন একটি বিষয় যেটা অনেক বেশি যুগোপযোগী এবং চাকরির বাজারে চাহিদা বেশি। সে ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচনটাও জরুরী। খুঁজে দেখতে হবে এমন কিছু বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে রয়েছে প্রয়োজনীয় সে সব বিষয় কিংবা বিভাগ।
তেমন সময়পযোগী ৩টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হয়েছে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে। ভেটেনারি এন্ড এ্যানিমেল সাইন্স। বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি। পদার্থ ও রসায়ন বিজ্ঞান।
ভেটেনারি এন্ড এ্যানিমেল সাইন্স: ৫ বছর মেয়াদী অনার্স কোর্স চালু করার লক্ষে ভেটেনারি এন্ড এ্যানিমেল সাইন্স অনুষদ সম্প্রতি গণ বিশ্ববিদ্যালয় চালু করা হয়েছে।

এই বিভাগের ভারপ্রাপ্ত চেয়াম্যান মো. মোস্তাফিজুর রহমান ক্যাম্পাসলাইভকে জানান-“এখানে মেডিকেল সাইন্স’র সকল বিষয়গুলো যেমন এনাটমি, ফিজিওলজি, বায়োকেমিস্ট্রি, মাইক্রোবায়োলজিসহ সব পড়ানো হবে। তবে পার্থক্যটা এখানেই যে, এমবিবিএস-এ মানুষের দেহ নিয়ে পড়াশোনা করা হয়। কিন্তু এখানে গৃহপালিতসহ অন্যান্য পশুপাখি নিয়ে পড়ানো হবে। সিলেবাসের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানের করে প্রণয়ন করা হয়েছে।”
তিনি আরো বলেন, “এ বিষয়ে ক্যারিয়ার উজ্জ্বল অবশ্যই। কেন না বিসিএস-এর ক্ষেত্রেও আমরা দেখেছি যে পরিমাণ পশু ডাক্তার আমাদের প্রয়োজন, সে পরিমাণ পরীক্ষার্থী থাকে না। তাই এখানেই তাদের উজ্জ্বল সম্ভাবনার আলো দেখতে পাচ্ছি। তাছাড়া বিভিন্ন ডেইরি ফার্মসহ গবেষণা কেন্দ্র এবং অনেক এনজিওর আওতায় বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজ করার সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে। অর্থাৎ এ বিষয়ে পাস করলেই কর্মসংস্থানের কোনো অভাব থাকার কথা নয়।”

প্রাথমিকভাবে বিভাগে ৬ জন শিক্ষক ও ১ জন অফিস সহকারী নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
এ বিভাগের ক্লাস পরিচালনা করার লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবনে ২টি ক্লাসরুম, প্রয়োজনীয় এনাটমি, ফিজিওলজি, বায়োকেমিস্ট্রি এবং ডিসেকশন ল্যাব ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। তাছাড়া প্রয়োজনীয় কম্পিউটার ল্যাবের সহায়তা পেতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল কম্পিউটার ল্যাব ব্যবহার করা হবে।
এই বিষয়ে ভর্তি হতে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক লেভেলের পড়াশোনায় বিজ্ঞান গ্রুপের শিক্ষার্থীদেরকে সর্বনিম্ন অবশোনালসহ ২.৫ এবং ২.৫ মোট ৫ গ্রেড পয়েন্ট থাকতে হবে।
এখনও ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়নি এ বিভাগে। তবে আগামী জুন-জুলাই সেশনে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে বলে নিশ্চিত করেন এ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত চেয়াম্যান এবং সাবেক হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মো মোস্তাফিজুর রহমান।

তাছাড়া বাংলাদেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এই বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু থাকলেও গণবি ব্যাতীত অন্য কোনো প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে এই অনবদ্য সুযোগটি নেই।

পদার্থ ও রসায়ন বিজ্ঞান: সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে প্রযুক্তির ডাকে আরো ভালোভাবে সাড়া দিতে ভৌত ও গাণিতিক বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে ৪ বছর মেয়াদী পদার্থ ও রসায়ন বিজ্ঞান কোর্স চালু হয়েছে চলতি বছর।
এই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. এম ফজলুল হক ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন-“এখানে বেসিক পদার্থ ও রসায়ন ছাড়াও ফলিত পদার্থ ও রসায়ন, কম্পিউটার সায়েন্সের নানা কোর্স, ইলেক্ট্রিক্যাল সাইন্সসহ বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখা, ইংরেজি, বাংলা, ইন্টারনেট ও ইনভায়রনমেন্ট সাইন্স বিষয়ে জ্ঞান সমৃদ্ধ করা হয়।

এখানে রসায়ন ও পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ে উচ্চতর শিক্ষা গ্রহণের মাধ্যমে পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি ছাড়াও উন্নত দেশে গবেষণা ও শিক্ষায় ডিগ্রিপ্রাপ্তদের চাকরির সুযোগও বৃদ্ধি পাবে। একই সঙ্গে পেশাগত দক্ষতা দেখানো সম্ভব হবে।”
তিনি আরো বলেন-“পেশাগত বিজ্ঞানের পদার্থ ও রসায়ন শাস্ত্রে শিক্ষিত ও গুণগত মাণ সম্পন্ন শিক্ষক ও বিজ্ঞানী তৈরী ও বিজ্ঞানী তৈরী করা। যাতে স্কুল, কলেজে এবং দেশের অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উপযুক্ত অবদান রাখতে পারে। তাছাড়া বিভিন্ন প্রাইভেট ফার্মে, বিসিএসসহ সরকারি চাকরি ও এনজিওতে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে এ বিষয়ে।”
এ বিভাগে ৪ জন অভিজ্ঞ এবং দেশে ও বিদেশে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকমন্ডলী ও দুইজন অফিস সহকারী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া পাশেই অবস্থিত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একই বিভাগের শিক্ষমন্ডলীর সহায়তায় (গেস্ট টিচারের মাধ্যমে) পরিপূর্ণরুপে চলছে বিভাগটি।
বর্তমানে এ বিভাগে মোট ৮ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত আছেন।

এই বিভাগের অধীনে শিক্ষার্থীদেরকে সঠিক শিক্ষা প্রদানের উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় ক্লাসরুম এবং আধুনিক যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ ল্যাব। যেমন- UV Spectrophotometer, perimeter, colorimeter, HPLC (High Performance Liquid Chromatography-সহ যাবতীয় প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক্স ও পদার্থবিদ্যায় ব্যবহৃত আধুনিক যন্ত্রপাতি এবং সমৃদ্ধ কেমিস্ট্রি ল্যাব রয়েছে। এছাড়া ইন্টারনেট সমৃদ্ধ কম্পিউটার ল্যাবও রয়েছে।

বিভাগটিতে গ্রামের দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্রদের বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ এবং গ্রামের অতি দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্রীদের বিনা খরচে থাকা-খাওয়াসহ পড়ার সুযোগ দানে বিশ্ববিদ্যালয় বিশেষ বৃত্তি প্রদান করে থাকে।

পদার্থ ও রসায়ন বিভাগে মাস্টার্স কোর্স চালু হয়নি এখনও। তবে অতি শিঘ্রই চালু হবে বলে জানান এই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. এম ফজলুল হক।
ভর্তি হতে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক লেভেলের পড়াশোনায় বিজ্ঞান গ্রুপের শিক্ষার্থীদেরকে সর্বনিন্ম অবশোনালসহ ২.৫ এবং ২.৫ মোট ৫ গ্রেড পয়েন্ট থাকা লাগবে।

এছাড়া বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে সিলেবাস তৈরী হয়েছে। আগামী শিক্ষাবর্ষে এ বিভাগে শিক্ষার্থী ভর্তির প্রক্রিয়া চলছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানিয়েছে।

 

[সূএ/ক্যাম্পাসলাইভ]

Tags:

No Comments to “গণবিতে সময় উপযোগী নতুন কোর্স চালু”

Comments are closed.