গবেষণা বলছে ,টাকায় ছড়াচ্ছে মারাত্মক রোগ

0
3

টাকা অতি বিষম বস্তু! মানুষের মধ্যে দ্বন্দ্ব বাড়ায়, থাকলে সুখ, আবার ক্ষেত্র বিশেষে অসুখও। এ পুঁজিবাদী দুনিয়ায় ও জিনিস না থাকলেতো হাতে হ্যারিকেন কিম্বা নিদেন পক্ষে পেনসিলও বড়ই দুর্মূল্য। অ-সুখের উপস্থিতি সেক্ষেত্রে বলাই বাহুল্য। কিন্তু অসুখ কি শুধু মনের বা সামাজিক? সরকারী গবেষণা বলছে মোটেও না। নোট বহন করে অসুখ-রোগ এবং যা পুরদস্তুর শারীরিক।

বিজ্ঞানীরা ৭৮টি রোগ সৃষ্টিকারী মাইক্রো অর্গানিজমের ফুটপ্রিন্টের উপস্থিতি খুঁজে পেয়েছেন নোটের মধ্যে।

তার মানে আপনার ওয়ালেটটিতে আসলে ডজন ডজন রোগ সৃষ্টিকারী মাইক্রো-অর্গানিজম বহাল তবিয়তে ঘুরে বেড়ায়।

সিএসআইআর-এর অধীনস্থ ইনস্টিটিউট অফ জেনোমিক্স অ্যান্ড ইন্টিগ্র্যাটিভ বায়োলজি(আইজিআইবি)-গবেষকরা ভারতের দক্ষিণ দিল্লির বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বহু ১০, ২০ ও ১০০ টাকার নোট সংগ্রহ করে তার উপর পরীক্ষা চালিয়েছেন। তাঁরা অন্তত ৭৮টি অসুখ সৃষ্টিকারী মাইক্রোঅর্গানিজমের ডিনএন ফুটপ্রিন্ট খুঁজে পেয়েছেন ওই নোটগুলির মধ্যে। বেশিরভাগই ছত্রাক জাতীয়, তবে তার সঙ্গেই আছে টিউবারকিউলিস, আলসার ও আন্ত্রিকের ব্যাকটেরিয়াও।

এই গবেষণা বলছে এই নোটগুলি রোগ সৃষ্টিকারী মাইক্রোঅর্গানিজমের বাহক হিসেবে কাজ করে। দ্রুত গতিতে মাইক্রোবিয়াল ডিসিজ ছড়িয়ে দেয়।