ঢাকা মেডিকেলে চোর পরিবার!



  • Add Comments
  • Print
  • Add to Favorites

সংখ্যায় তারা বেশ কয়েকজন। ঢাকা মেডিকেলে আছেন প্রায় এক মাস ধরে। প্রতিদিনই তাদের বলতে শোনা যায় আজ না কাল রিলিজ, আর বেশিদিন নেই, পরশু মেয়েকে নিয়ে চলে যাব-এমন আরো কত কী! আসমা বেগম (৩৫), তার পিতা শাহজান জমাদ্দার, মা- বেগম (৬০), আসমার মেয়ে ফজিলা আক্তার(১৫), বৈশাখী(৩), নূপুর(২)।  এদের মধ্যে ফজিলাকে রোগী সাজানো হয়েছে। তারা উঠেছেন ৮০১ নম্বর ওয়ার্ডের ৩৫ নম্বর বেডে।

ওই ওয়ার্ডের রোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আসমারা বেশ কয়েকদিন ধরে এখানে আছেন। কথায় কথায় সবাই মিলে পাশের রোগী এবং স্বজনদের সঙ্গে খাতির জমান। এরপর কৌশলে তাদের টাকা-পয়সা হাতিয়ে নেন। তবে প্রধান টার্গেট মোবাইল ফোন।

‘চোরের দশদিন, গৃহস্থের এক দিন।’ সেই দিন আসল আজ মঙ্গলবার। বেনু বেগম নামের এক রোগীর মোবাইল ফোন চুরি করেন আসমা। কিন্তু তা দেখে ফেলেন অন্য এক রোগী। এরপর বেনু তার মোবাইল খুঁজে না পেয়ে সবাইকে বলেন। এক পর্যায়ে আসমা বেগমকে ফোনটি ফেরত দেয়ার অনুরোধ করেন ওই রোগী, যিনি ঘটনাটি দেখে ফেলেছিলেন। কিন্তু আসমা বেগম চুরির বিষয়টি অস্বীকার করেন। বলতে থাকেন, ‘এই সব কাম মোরা করি না। আজ রিলিজ হইলেই চইলা যাব। এগুলো দিয়া মোগো দরকার কী।’

এরপর ওয়ার্ডের অন্য রোগীরা বাধ্য হয়ে মেডিকেলের আনসার সদস্য আব্দুর রশীদকে খবর দেন। তিনি ঘটনাস্থলে এসে আসমাদের ব্যাগ তল্লাশি করে তিনটি মোবাইল ফোন ও ১৪ হাজার ৭৩৫ টাকা উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে শাহবাগ থানার এসআই আসমাসহ তার পরিবারের সবাইকে থানায় নিয়ে যান।




No Comments to “ঢাকা মেডিকেলে চোর পরিবার!”

Comments are closed.