ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক ও ফিজিশিয়ান একে অপরের শত্রু নয়, সহযোগী!

71

আমি নিজেই একটা মাল্টিস্পেশালিটি হাসপাতালে ফিজিওথেরাপি বিভাগের দায়িত্বে আছি। যেখানে হাসপাতালের কতৃপক্ষ থেকে শুরু করে ম্যানেজমেন্ট এর মধ্যেও ফিজিশিয়ান আছেন। এমনকি স্বাচিপ এর ইসি মেম্বার ও আছেন ম্যানেজমেন্ট এর মধ্যে।

কথা হলো আমাদের মধ্যে সম্পর্ক কেমন??
অত্যন্ত আন্তরিক, প্রফেশনাল এবং সর্বোপরি সর্বোচ্চ সৌহার্দ্য পুর্ন সম্পর্ক বিদ্যমান। এমনো অনেক ফিজিশিয়ান এবং কনসালটেন্ট আছেন যারা আমার চাইতে শুধু সিনিয়র ই না বরং অনেক সিনিয়র কিন্তু তারাও দেখে সালাম দিয়ে ফেলে তখন আমি নিজেও লজ্জিত হয়ে যাই, কারন সিনিয়র হিসেবে ওনারাই আমার সালাম প্রাপ্য।
অসংখ্য কনসালটেন্ট, প্রফেসর, এসোসিয়েট প্রফেসর, এসিএসিস্ট্যান্ট প্রফেসর সবার সাথে একসাথে মিলে আমরা প্র‍্যাক্টিস করছি, এবং আমি নামের পুর্বে ডাঃ প্রিফিক্স ব্যবহার করেই প্র‍্যাক্টিস করছি কোন দিন কোন সমস্যা হয় নাই।

গত রমজানের ছোট একটা ঘটনা বলি, একজন নিউরোসার্জন, পিজি হাসপাতালের এক্স বিভাগীয় চেয়ারম্যান স্যার, একটা রোগীর ব্যাপারে স্বিদ্ধান্ত নিবে, যেখানে স্যার ছিলেন, একজন অর্থোপেডিক সার্জন ছিলেন, একজন মেডিসিন এর এসোসিয়েট প্রফেসর ছিলেন, একজন কিডনী স্পেশালিষ্ট ছিলেন, এবং আমি ছিলাম, শিডিউল টা আগে থেকেই ফিক্সড করা ছিলো, কিন্তু দুর্ভাগ্য ক্রমে আমি আগের দিন থেকে জ্বরে আক্রান্ত হই। বার বার হাসপাতাল থেকে ফোন দিচ্ছে আসার জন্য,আমি খুব অসুস্থ আমার স্বিদ্ধান্ত ছিলো আসবো না। কিন্তু পরবর্তীতে দেখলাম রোগীর জন্য আসতে হবে। পরে আসলাম এবং সিনিয়র মোস্ট সিনিয়র নিউরোসার্জন স্যার ও প্রায় ৩০ মিনিটস অপেক্ষা, আমি আসার পরে আবার পুনরায় সব স্বিদ্ধান্ত তখন স্যার বললো এই রোগীর সুস্থ্যতায় ফিজিওথেরাপির ভুমিকা সবচাইতে বেশি তাহলে, আপনাকে ছাড়া ওনার সঠিক স্বিদ্ধান্ত সম্ভব নয়।

একজন মেডিসিন স্পেশালিষ্ট কে দেখতাম, এখন ওনার ম্যাক্সিমাম ফ্যামিলি মেম্বার ফিজিওথেরাপি রিলেটেড সকল সমস্যার জন্য আমার কাছে আসেন, এমন কি ফিজিওথেরাপি চলাকালীন কোন মেডিসিন প্রয়োজন হলেও বলে আমাকেই দেওয়ার জন্য। এবং উনি সর্বোত্তম রেফারেন্স সিস্টেম অনুসরণ করেন।

আমাদের হাসপাতাল বা আশেপাশের অসংখ্য ফিজিশিয়ান, অনেক সিনিয়র স্যার ম্যাডাম দের পরিবার, তাদের নিজেদের সমস্যায় ফিজিওথেরাপি বিভাগে আসেন, এবং চিকিৎসা নেন, সুস্থ্য হয়ে তারাই স্বিকার করেন ফিজিওথেরাপি ম্যাজিক ছাড়া মেডিসিনে এই সমস্যা গুলো ঠিক হওয়া সম্ভব না। এমন কি সামান্য একটু ব্যথা হলেও আলহামদুলিল্লাহ আমার বিভাগের দারস্থ হন। হুম হয়তো অনেকেই জানতেন না, আমাদের ৫ বছর মেয়াদি ব্যাচেলর ডিগ্রি আছে, আমাদের কোর্স কারিকুলাম, আমাদের আন্ডারগ্র‍্যাজুয়েট, পোস্ট গ্র‍্যাজুয়েশন ডিগ্রীর বর্তমান অবস্থান, ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক দের কোয়ালিটি তারা এই বিষয়ে সঠিক তথ্য জানতেন না। জেনে ম্যাক্সিমাম ফিজিশিয়ান এই প্রফেশনের প্রসংশা করেন।

এই তো গেলো সিনিয়র দের কথা।
ম্যাক্সিমাম ক্ষেত্রেই জুনিয়র বা ডিউটি ডাঃ দের সাথেই ঝামেলা হয়, কিন্তু না ওনাদের সাথে আরো ভালো সম্পর্ক, তারা তাদের কনসালটেন্ট দের যেভাবে সম্মান করে আমাদের কেও সেভাবেই সম্মান করে, দুই একজ৷ তো ব্যতিক্রম থাকবেই কিন্তু বুঝালেই সকল সমস্যার সমাধান সম্ভব।
আসলে সমস্যা টা ফিজিশিয়ান এবং ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক দের মধ্যে না, সমস্যা আমাদের সিস্টেম এর। কারন দেশের ম্যাক্সিমাম হাসপাতালে টেকনোলোজিস্ট দিয়ে বিভাগ পরিচালনা করেন,ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক নেই, তো ওনারা যা দেখেন সেটাই উপস্থাপন করেন।
সামান্য কিছু ফিজিশিয়ান নিজেদের ব্যক্তিগত লোভ বা ব্যক্তি স্বার্থে ফিজিশিয়ান এবং ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক দের মধ্যে দুরত্ব এবং দন্দ তৈরি করছেন। যা কখনোই চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নতি বয়ে আনবে না।

মনে রাখতে হবে একজন রোগীকে সুস্থ্য করতে হলে অবশ্যই মাল্টিডিসিপ্লিনারি টিম এপ্রোচ লাগবে।
(বিঃদ্রঃ বাংলাদেশের ম্যক্সিমাম হাসপাতালেই ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক দের সাথে অন্যান্য চিকিৎসা প্রফেশনাল দের সাথে যথেষ্ট ভালো সম্পর্ক বিদ্যমান, কিন্তু স্বার্থান্বেষী মহল চায় না এই সম্পর্ক ভালো থাকুক)

তাই আসুন রোগীদের বৃহত্তর স্বার্থে চিকিৎসা সেক্টরের কুচক্রী মহল কে উপেক্ষা করি, এবং যার যার প্রাপ্য সম্মান তাকে দেওয়ার চেষ্টা করি, তাহলেই একটি রোগী বান্ধব বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হবে।

ডাঃ মোঃ নেছার উদ্দিন (সাকের), পিটি

যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক

বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি এসোসিয়েশন (বিপিএ)।  প্রতিষ্ঠাতা,ফিজিওজোন ফিজিওথেরাপি সেন্টার। ও
কনসালটেন্ট ফিজিওথেরাপিস্ট,
কেসি হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার।