বিপিএ নির্বাচন ও আমার কিছু কথা



  • Add Comments
  • Print
  • Add to Favorites

 

সারা পৃথিবীতে ফিজিওথেরাপি একটি সম্মানজনক ও প্রতিষ্ঠিত পেশা ৷ কিন্তু দূর্ভাগ্যজনক হলেও, সত্য যে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট সম্পূর্ণ তার উল্টো ৷

যদিও বাংলাদেশে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার সূত্রপাত স্বাধীনতার পূর্বে ৷ স্বাধীনতার পর পর খুব সম্মানজনক অবস্থায়ই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর অধীনে নিটোরে চালু হয়েছিল ফিজিওথেরাপি গ্রাজুয়েশন কোর্স ৷ তৎকালিন সময়ের পঙ্গুতে ফিজিওথেরাপি ভর্তির বিজ্ঞাপনও ছিল ঈর্ষনীয় ৷ এমবিবিএস এ ভর্তির চেয়ে ফিজিওথেরাপি পড়তে অনেক বেশি যোগ্যতা লাগতো ৷

কিন্তু সেই ঐতিহ্য হারাতে হারাতে এখন পেশার কি নাজুক অবস্থা এই বাংলাদেশে! অল্প কিছু টাকা থাকলে যেই কেউ ফিজিওথেরাপিস্ট হতে পারে, কলা বিভাগ হলেও সমস্যা নেই।

জানিনা এই অবস্থার জন্য কে বা কারা দায়ী ৷ অন্য পেশার কুচক্রী শত্রুরা, আমরা নিজেরা নাকি আমাদের নিয়তি? আমার ব্যক্তিগত জরিপ মতে যেসমস্ত ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক প্র্যাকটিস করেন, তাদের মধ্যে ৬০ ভাগই তাদের প্রাকটিস নিয়ে অখুশি ৷ ১০ ভাগ অখুশি থাকা সত্বেও মানসম্মানের ভয়ে অখুশি থাকার ভাব দেখায় ৷ ৯০ ছাত্রই হতাশায় ভোগে যে পাশ করে তারা কি করবে ৷

সরকারি প্রতিষ্ঠানে পড়ুয়া বেশিরভাগ শিক্ষার্থী মনে করেন তারা ফিজিওথেরাপি পড়তে এসে বোকা হয়েছেন ৷ তারা প্রফেশনের এমন বাজে অবস্থা কখনই জানতেন না এবং তারা চাইলে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক ভালো সাবজেক্টও পড়তে পারতেন ৷

জেনেশুনে ফিজিওথেরাপি পড়তে এসেছে এমন ছাত্রসংখ্যা হাতে গোনা কয়েকজন ৷ কেনই বা আসবে, ফিজিওথেরাপির সত্যিকার অবস্থা আমরা সবাই জানি।

তবে শত হতাশার মধ্যেও মানুষ আশা খোজে। আমরাও তার ব্যতিক্রম না। আমাদের ফিজিও পেশার নায়কদের দিকে আমরা আশায় বুক বাধি ৷ তারা নিজেরাও ভাল আছে, আমাদের অনেককেই ভাল রাখছে।

আমি তাদের প্রত্যাখ্যান করি যারা নিজেরা কোটি কোটি টাকা কামাই করে নিছে, দামী গাড়ীতে চড়ে অথচ তাদের সেন্টার বা হাসপাতালে একজন গ্রাজুয়েট ফিজিও নেই। সব টেকনিশিয়ান আর দুই একজন ডিপ্লোমাধারী।

এদের বয়কট করেন এরা ফিজিও প্রফেশনকে এরা কিছুই দিতে পারবে না। এসোসিয়েশন দিয়ে নিজের কাজ সিদ্ধ করবে শুধু মাত্র।

বর্তমানে ফিজিও পেশার উন্নতির এক যুগন্তকারী পদক্ষেপ হলো ইউনাইটেড বিপিএ এর নির্বাচন ৷ যদি কোন কারচুপি না হয়!

আমি যতদুর জানি এই নির্বাচনে সাইফুল ( Saiful Islam) ভাইয়ের মত অনেক নতুন মুখ আসতেছে।আমি অনুরোধ করব অভিজ্ঞদের সাথে নতুনদের কাজ করার সুযোগ দিন।

সাইফুল ভাইকে আমি ব্যক্তিগত ভাবে চিনি, উনি ১০০% ফিজিওপ্রফেশন মুখী। উলটা পালটা প্র্যাকটিস করে না। গ্রাজুয়েট, ডিপ্লোমা অসংখ্য ফিজিও ভিশনে কাজ করে উপকৃত হয়েছে এবং হবে। ইনশাল্লাহ।

প্রফেশনের উন্নতিতে শুধু সাইফুল ভাই না, তার মত আরও যারা ফিজিও প্রফেশন নিয়ে সৃজনশীল চিন্তাভাবনা করেন বা করার ক্ষমতা রাখেন। তাদেরকেই বিপিএ তে ভাল পজিশনে দেখতে চাই।

ধন্যবাদ
মুমিন উল্লাহ

[ ফেসবুক কর্নার বিভাগের সকল লেখা লেখকের ফেসবুক থেকে সংগ্রহীত এবং যা সম্পূর্ণভাবেই লেখকের নিজেস্য মন্তব্য । ]




Tags:

No Comments to “বিপিএ নির্বাচন ও আমার কিছু কথা”

Comments are closed.