শরীরের ক্যালশিয়ামের অভাব হলে বুঝবেন কিভাবে ?



  • Add Comments
  • Print
  • Add to Favorites

শরীরের নানা জায়গার হাড়, মাংসপেশী ও স্নায়ুতন্ত্রকে সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য পরিমিত মাত্রায় ক্যালশিয়াম গ্রহণ করা প্রয়োজন। ক্যালশিয়ামের অভাবে নানা সমস্যা দানা বাধঁতে পারে। ক্যালশিয়ামের অভাবে হাড়ের ঘনত্ব কমে যাওয়া, অস্টিওপরোসিসের মতো সমস্যা হতে পারে। এছাড়া বাতের সমস্যা ও কিছুক্ষেত্রে তা হৃদযন্ত্রেরও গোলমাল বাঁধাতে পারে। ক্যালশিয়ামের অভাব হলে তার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়ে হাড় ও দাঁতে। খাবারে ক্যালশিয়ামের অভাব হলে দেহের নানা জায়গা থেকে তা টেনে নেওয়ার চেষ্টা করে শরীর। ফলে দেহে ক্য়ালশিয়ামের দৈন্যতা তৈরি হয়। ক্যালশিয়াম শরীরের নানা অঙ্গকে পুষ্টি জোগানোর পাশাপাশি নানা ধরনের সংক্রমণের হাত থেকে লড়তেও সাহায্য করে। গত কিছুবছরে ক্যালশিয়ামের অপুষ্টি মানুষের মধ্যে বেশি করে চোখে পড়ছে। ঠিক কীভাবে বুঝবেন আপনার শরীরে ক্যালশিয়ামের ঘাটতি হচ্ছে, তা জেনে নিন :

মাংসপেশীতে টান ধরা : শরীরে ক্যালশিয়ামের খামতি হয়েছে তার অন্যতম লক্ষণ হল মাংসপেশীতে টান ধরা। এর পাশাপাশি নানা জায়গায় মাংসপেশী ব্যথাও হতে পারে।

স্মৃতিভ্রম : শরীরে ক্যালশিয়ামের খামতি থাকলে মনে রাখার ক্ষমতা কমে যায়। স্নায়ুতন্ত্র দুর্বল হওয়ায় এটি হয়ে থাকে।

অসাড়তা : ক্যালশিয়ামের অভাবে অনেক সময় হাত-পায়ে অসাড়তা অনুভব হয়।

অবসাদ : ক্যালশিয়ামের খামতি হলে খুব সহজেই তা মনকে কাবু করে। মন খুব তাড়াতাড়ি অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ে। এছাড়া মন সহজে বিচলিতই হয়ে পড়ে।

ক্লান্তি : ক্যালশিয়ামের অভাবে শরীর ও মন দুটোই সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়ে। সহজেই ক্লান্তি গ্রাস করে ও নিজেকে দুর্বল লাগে।

দুর্বল নখ : নিজের শরীরে ক্যালশিয়ামের ঘাটতি রয়েছে কিনা তা সহজে বুঝে নিতে পারেন এইভাবেও। কারণ এর অভাব হলে নখ খুব পাতলা হয় ও সহজেই ভেঙে যায়।

খিদে কম পায় : শরীরে ক্যালশিয়ামের অভাব হলে বমি বমি ভাব হয় ও খিদে কম পায় বা একেবারেই খিদে ভাব লোপ পায়।

No Comments to “শরীরের ক্যালশিয়ামের অভাব হলে বুঝবেন কিভাবে ?”

Comments are closed.